খেলাধুলা

এখন আন্তর্জাতিক ম্যাচে আমরা ৮-১০ গোল খাই না: কাজী সালাউদ্দিন

  জাগোকন্ঠ ১৭ জুন ২০২২ , ১০:১০ পূর্বাহ্ণ

মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরে এএফসি এশিয়ান কাপের ব্যর্থ মিশন শেষে বৃহস্পতিবার ভোরে দেশে ফিরেছে বাংলাদেশ ফুটবল দল।

টুর্নামেন্টের বাছাই পর্বে বাহরাইনের কাছে ২-০, তুর্কমেনিস্তানের কাছে ২-১ এবং স্বাগতিক মালয়েশিয়ার কাছে ৪-১ গোলে হেরেছেন জামাল ভূঁইয়ারা।

এমন নিদারুণ ব্যর্থতার মধ্যেও ইতিবাচক দিক খুঁজে পেয়েছেন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) সভাপতি কাজী মো. সালাউদ্দিন।

তিনি বলেন, ‘একসময় আমরা আন্তর্জাতিক ম্যাচে ৮-১০ গোল খেতাম। এখন খাই না।’

বৃহস্পতিবার যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় আয়োজিত, ‘বছরব্যাপী ফুটবল প্রতিযোগিতাসমূহ আয়োজন, প্রশিক্ষণ এবং বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনকে শক্তিশালীকরণ’— শীর্ষক কর্মশালা শেষে গণমাধ্যমকে এ কথা বলেন বাফুফে সভাপতি।

কাজী মো. সালাউদ্দিন বলেন, ‘সবাই শুধু বলে আমাদের অতীত অতীত অতীত। অতীতের তো আমিও। আমি তো জানি, আমরা কয়টা ইন্টারন্যাশনাল ম্যাচ খেলেছি। কী রেজাল্ট ছিল। তখন আপনাদের মতো এমন মিডিয়া ছিল না। তখন আমাদের সময় যেটি ছিল, ঢাকা স্টেডিয়ামে দর্শক আসার অভ্যাস ছিল। আজকে এ অভ্যাসটা নেই। দর্শক মাঠে আসত আবাহনী-মোহামেডানের খেলায়। তা ছাড়া আমরা যাদের সঙ্গে খেলতাম, কোনো টপ টিমের সঙ্গে খেলিনি।’

বাফুফে সভাপতি বলেন, ‘আমি আপনাদের দেখিয়ে দিতে পারি ‘৮০ থেকে ‘৯০ সালের মধ্যে কতগুলো ম্যাচে ৮ গোল ১০ গোল খেয়েছি। এটি কিন্তু আজকে আমরা খাই না। যারা খেলা দেখেছেন, তারা বলবেন, ইয়েস ওই সময়ের সঙ্গে তুলনা করলে আজকের খেলোয়াড়রা অনেক ভালো।’

এদিকে ওই কর্মশালায় ফুটবলের উন্নয়নে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের কাছে ৪৫০ কোটি টাকা চেয়েছে বাফুফে। যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় বাফুফের এই চাহিদাকে গুরুত্ব দিয়েছে।

কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিথ ছিলেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল এমপি। আরও উপস্থিত ছিলেন যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সচিব মেজবাহ উদ্দিন, জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের সচিব পরিমল সিংহ, বাফুফের অংশীদার বিভিন্ন ক্লাব, সংস্থার প্রতিনিধিরা।