দেশজুড়ে

আওয়ামী লীগের ৭৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করলো খিলক্ষেত থানা আওয়ামী লীগ হাফিজুর রহমান

  জাগোকন্ঠ ২৪ জুন ২০২২ , ২:৪১ অপরাহ্ণ

বঙ্গবন্ধু-আওয়ামীলীগ-বাংলাদেশ’ ইতিহাসে এই তিনটি নাম অমলিন, অবিনশ্বর ও একই সূত্রে গাঁথা। উপমহাদেশের অন্যতম প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহী বৃহৎ রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের গৌরবোজ্জ্বল ৭৩ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে খিলক্ষেত থানা ও ৯৬ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ আলোচনা ও দোয়া মাহফিল আয়োজন করেন খিলক্ষেত বাজার আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে। সব আন্দোলন-সংগ্রামে সামনে থেকে নেতৃত্ব দেওয়া দলটির অর্জন অনেক। দলটির সভানেত্রী শেখ হাসিনা টানা সাড়ে ১৩ বছর ধরে দেশের প্রধানমন্ত্রী। তিনি তার নেতৃত্বে দেশকে উন্নয়নের পথে এগিয়ে নিচ্ছেন। অর্জনের এই ধারাবাহিকতায় এবারের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর একদিন পরেই যুক্ত হচ্ছে নতুন মাইলফলক। বহুল প্রত্যাশিত পদ্মা সেতু উদ্বোধন হচ্ছে ২৫ তারিখ। তবে অমসৃণ ও দীর্ঘ এই চলার পথে আওয়ামী লীগের সামনে এসেছে নানা বাধা-বিপত্তি, দুর্যোগ-দুর্বিপাক। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা থেকে শুরু করে সামরিক জান্তাদের রোষানল, নিষেধাজ্ঞা, হামলা-মামলাসহ কণ্টকাকীর্ণ দীর্ঘ পথ পাড়ি দিতে হয়েছে দলটিকে।বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এখন শুধু উন্নয়নের রোল মডেলই নয়, একটি মানবিক রাষ্ট্র হিসেবেও প্রশংসিত। নির্যাতনের শিকার ১১ লাখ রোহিঙ্গাকে বাংলাদেশ আশ্রয় দেওয়ার পাশাপাশি খাদ্য, বস্ত্র-চিকিত্সাও দিচ্ছে। এখন বাংলাদেশের নাম শুনলে সবাই সম্মানের চোখে দেখে। দলটি করোনা মোকাবিলা করে যখন ইতিহাসের সবচেয়ে ‘সুসময়’ পার করছিল, তখনই সামনে এসেছে ভয়াবহ বন্যা।আন্দোলন-সংগ্রামে পরীক্ষিত দলটির এবার বন্যা মোকাবিলা করা বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে। করোনা ভাইরাসের কারণে এবারও প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কর্মসূচি সীমিত করা হয়েছে।পুরান ঢাকার রোজ গার্ডেনে যে দলটির প্রতিষ্ঠা, সেই আওয়ামী লীগ পেয়েছে বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে সুরম্য ১০ তলা নিজস্ব কেন্দ্রীয় কার্যালয়। এদেশের প্রতিটি আন্দোলন-সংগ্রামে আওয়ামী লীগের ভূমিকা প্রত্যুজ্জ্বল। আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে অনেক ষড়যন্ত্র হয়েছে। তবে ষড়যন্ত্রের মধ্যেই আওয়ামী লীগ বারবার মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে, দলটি উজ্জ্বলতর হয়েছে। ৪৭-র দেশ বিভাগ, ৫২-র ভাষা আন্দোলন, ৬২-র ছাত্র আন্দোলন, ৬৬-র ছয় দফা, ৬৯-র গণঅভ্যুত্থান, ৭০-র যুগান্তকারী নির্বাচন আর ১৯৭১ সালের মহান স্বাধীনতা আন্দোলন সবখানেই কৃতিত্ব এককভাবে আওয়ামী লীগের। ১৯৪৯ সালের ২৩ জুন পুরোনো ঢাকার কে এম দাস লেনের ঐতিহাসিক রোজ গার্ডেনে তত্কালীন পাকিস্তানের প্রথম প্রধান বিরোধী দল হিসেবে পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী মুসলিম লীগ প্রতিষ্ঠা লাভ করে। আলোচনা সভায় এ সব কথা বলেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ঢাকা মহানগর উত্তআওয়ামী লীগের কার্যকরী সদস্য মিজানুর রহমান চাঁন, বিশেষ অতিথি খিলক্ষেত থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাজ্বী আসলাম উদ্দিন ও অন্যান্য নেতৃবৃন্দগন। দোয়া মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন খিলক্ষেত থানা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও ৪৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শরিফুল ইসলাম ভূঁইয়া, ৯৬ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী আমিনুল ইসলাম, খিলক্ষেত থানা আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আবু সায়েম দর্জী,যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক আব্দুল গাফফার, ৪৩ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোক্তার হোসেন, খিলক্ষেত থানা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি এম এ হাসান সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ হারুন অর রশিদ খিলক্ষেত থানা মহিলা আওয়ামী লীগের নেত্রী শশী আক্তার শাহিনাসহ আওয়ামী অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। আলোচনা শেষে দোয়া ও কেক কেটা এবং মিষ্টি বিতরণ করা হয়

আরও খবর: