খেলাধুলা

ফিক্সিংয়ের দায়ে প্রোটিয়া পেসারের ৫ বছরের জেল

  জাগোকন্ঠ ১৪ জুন ২০২২ , ২:০৯ অপরাহ্ণ

র‍্যাম স্লাম টি-টুয়েন্টি টুর্নামেন্টের ২০১৫ আসরে ম্যাচ ফিক্সিংয়ের দায়ে ছয় বছরের কারাদণ্ড হয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকার পেসার পুমেলেলা মাতশিকওয়ের। যিদিও শাস্তির পাঁচ বছর স্থগিতদণ্ড পেয়েছেন ৩৭ বর্ষী পেসার।

মঙ্গলবার মামলার রায় দিয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকার একটি আদালত।

মাতশিকওয়ের বিরুদ্ধে ফিক্সিংয়ের অভিযোগ এটাই প্রথম নয়। ২০১৬ সালে ছয় ক্রিকেটারকে একসঙ্গে নিষিদ্ধ করেছিল ক্রিকেট সাউথ আফ্রিকার (সিএসএ) এন্টি করাপশন ইউনিট। তাদের মধ্যেও ছিলেন পুমেলেলা। সেবার দশ বছরের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছিলেন।

মূলত আইসিসির কোড অব কন্ডাক্টের চারটি ধারা অমান্য করায় শাস্তি পেয়েছেন পুমেলেলা। সেগুলো হল- র‍্যাম স্লামে এক বা একাধিক ম্যাচ পাতানো, প্রচুর অর্থ আদানপ্রদান, বোর্ডের এন্টি করাপশন ইউনিটের কাছে অর্থ লেনদেনের যথাযথ হিসেব দিতে ব্যর্থ হওয়া এবং ফিক্সিংয়ের প্রস্তাবের বিস্তারিত তথ্য না দেওয়া।

গোলাম বদির পর প্রোটিয়াদের দ্বিতীয় খেলোয়াড় হিসেবে ফিক্সিং ঘটনায় কারাদণ্ড পেলেন পুমেলেলা। ২০১৯ সালে একই অভিযোগে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড পেয়েছিলেন বদি। ২০১৬ সালে নিষেধাজ্ঞা পাওয়া অন্য ক্রিকেটাররা হলেন থামি সোলেকিলে, জিন সাইমস, এথি বালাতি ও আলভিরো পিটারসেন।

প্রোটিয়া জার্সিতে নামা না হলেও প্রথম শ্রেণির ভালো পরিসংখ্যান আছে মাতশিকওয়ের। ৭৭ ম্যাচে নিয়েছেন ১৭৮ উইকেট। ২০০৯-২০১৬ সালের মধ্যে ২৪টি টি-টুয়েন্টি খেলেছেন ডানহাতি পেসার। লিস্ট-এ ক্রিকেটে তার নামের পাশে আছে ৫৭টি ম্যাচ।