দেশজুড়ে

শ্রীনগর ষোলঘরে কিশোরদের মদ্যপানে মাতলামিতে এলাকাজুড়ে আতংক

  জাগোকন্ঠ ২৪ জুন ২০২২ , ২:৪৪ অপরাহ্ণ

মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরে মহিলা ইউপি সদস্যের নাতীসহ ৭ কিশোর মদ্যপানে রাতভর মাতলামিতে এলাকাবাসীর মধ্যে আতংকের অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার(২৩ জুন) দিবাগত রাত ১১ টার দিকে উপজেলার ষোলঘর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের উমপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নেশাগ্রস্থ কিশোররা হলেন, উপজেলার ষোলঘর ইউনিয়নের ৭,৮ ও ৯নং ওয়ার্ডের মহিলা ইউপি সদস্যে ফিরোজা বেগমের নাতী জাসিমের ছেলে আব্দুল্লাহ(১৭)সহ একই এলাকার মিরাজ মোল্লার ছেলে মোরসালিন(১৫), মিঠুর ভাগিনা পার্শ্ববতী সিরাজদিখানের চালতীপাড়া গ্রামের মাহফুজ(১৫), সোনামিয়ার ছেলে নাফিস(১৫), সুরুজের ছেলে নাহিদ(১৬), ও চুন্নু মিয়ার ছেলে সায়েম(১৫) পাশে হাসাড়া গ্রামের অজ্ঞাত নামা আরেক কিশোর।

এলাকাবাসী অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত রাতে মহিলা ইউপি সদস্যে ফিরোজা বেগমের নাতী জাসিমের ছেলে আব্দুল্লাহ(১৭) জন্মদিন উপলক্ষে আব্দুল্লাহসহ মোরসালিন, মাহফুজ, নাফিস, নাহিদ, সায়েম ও হাসাড়া গ্রামের অজ্ঞাতনামা কিশোর বিদেশী মদ্য পান করে নৌকা যোগে রাত ১১টার দিকে প্রথমে বিল্লাল হোসেনের বাড়ীতে উঠে মাতলামি শুরু করলে বিল্লালের স্ত্রী সালেহা বেগম তাদেরকে তাড়িয়ে দেয় পরে তারা নেশারঘোরে নৌকা নিজেরাই ডুবিয়ে সালেহা বেগম অকর্থ্য ভাষায় গালিগালাজ করে এবং পাশ্ববর্তী মেহেদীর বাড়ীতে গিয়ে তাকেও গালিগালাজ করে। পরে বিল্লালের জামাতা সুমন এসে তাদের খোজাখুজি করার চেষ্টা করে এবং এক পর্যায়ে ফিরোজা মেম্বারের বাড়ীতে গিয়ে ঐ ৭ কিশোরকে নেশাগ্রস্থ অবস্থায় দেখতে পায় । পরে প্রত্যেক কিশোরকে আগামীকাল বিচার শালিশ করবে বলে আশ্বাস দিয়ে মহিলা ইউপি সদস্যে তাদের অভিভাবকের জিম্মায় দেয়।

বিল্লালের জামাতা সুমন জানায়, আমার শ্বশুর বিল্লাল হোসেন আমাকে ফোনে জানাইলে আমি দ্রুত ঘটনাস্থলে যাই এবং ফিরোজা মেম্বারের নাতী আব্দুল্লাহসহ ৭ কিশোর নেশাগ্রস্থ অবস্থায় আমার শ্বশুর ও ফুফা মেহেদীর বাড়ীতে গিয়ে গালিগালাজ করছে শুনে আমিসহ এলাকার আরো লোকজনদের মধ্যে আতংক বিরাজ করে। যদি নেশারঘোরে কিশোররা নৌকা ডুবে মারা যায়। তখন আমিসহ আরো লোকজন তাদের খোজাখুজি করতে থাকি একপর্যায়ে ঐ ৭ কিশোরকে ফিরোজা মেম্বারের বাড়ীতে গিয়ে পায় এবং পরে ফিরোজা মেম্বার বিচারের আশ্বাস দিলে প্রত্যেক অভিভাবক তাদের ছেলেদের বাড়ীতে নিয়ে যায়।

কিশোর আব্দুল্লাহর নানা চাঁন মিয়া ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ঘটনার বিষয়ে আমার বোন ফিরোজা মেম্বার সব জানে।

এব্যাপারে মহিলা ইউপি সদস্যে ফিরোজা বেগমের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ঘটনার বিষয়ে বক্তব্য দিতে দিতে আমার মুখ ব্যাথা হয়ে গেছে। এই বিষয়ে আমরা বিকেলে শালিশ বৈঠক করবো।

৮নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আরিফুল ইসলাম লিফটনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, শুনছি মহিলা মেম্বার ফিরোজা বেগমের নাতী আব্দুল্লাহর জন্মদিন উপলক্ষে তারা এই নেশা পান করেছে।

ষোলঘর ইউপি চেয়ারম্যান আজিজুল ইসলাম বলেন, এব্যাপারে আমার কোন কিছু জানা নেই। আপনি মেম্বারের সাথে কথা বলেন।

শ্রীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আমিনুল ইসলাম বলেন, এব্যাপারে এখনও কোন অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

আরও খবর: