দেশজুড়ে

লক্ষ্মীপুরে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে বৃদ্ধকে কুপিয়ে হত্যা

  জাগোকন্ঠ ৪ আগস্ট ২০২২ , ১:১৩ অপরাহ্ণ

লক্ষ্মীপুরে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে মো. হোসেন আহমেদ (৫৫) নামে এক বৃদ্ধকে কুপিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন। এ ঘটনায় আরও ৪ জন আহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) দুপুর ১২টার দিকে সদর উপজেলার দিঘলী ইউনিয়নের উত্তর রমাপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত হোসেন উত্তর রমাপুর গ্রামের মৃত আলী আহমেদের ছেলে। আহতরা হলেন আমির হোসেন (৫০), তার ছেলে আকরাম হোসেন (১৯), নাজমুল ইসলাম (১৫) ও মনির আহমেদের ছেলে কামরুল হোসেন। আহতদের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে।

খবর পেয়ে সদর হাসপাতালে আহতদের দেখতে আসেন লক্ষ্মীপুর জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) ড. এএইচএম কামরুজ্জামান।

স্থানীয় সূত্র ও ভুক্তভোগীরা জানান, উত্তর রমাপুর গ্রামের আব্দুস সাত্তার মাস্টারের পরিবার ও ইউনুস মাস্টারের পরিবারের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছে। আজ সকালে ইউনুসের ছেলে সাইফুর রহমান দুলাল, সাইদুর রহমান মিলন ও লিটন ভাড়াটে লোকজন নিয়ে সাত্তার মাস্টারের জমিতে ঘর নির্মাণ করতে যায়। এতে বাধা দিলে তারা সাত্তার মাস্টারের মেয়ে জামাই হোসেন আহমেদসহ কয়েকজনকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে।

পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে আনার পথে হোসেন আহমেদ মারা যান। আহত আমির, আকরাম, নাজমুল ও কামরুলকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে ঘটনার পর থেকেই হামলাকারীরা পলাতক রয়েছেন। এ কারণে কারও বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

নিহতের স্বজন আবদুল বাকের বলেন, ইউনুসের ছেলেরা পরিকল্পিতভাবে হামলা করেছে। আমার ভায়রা ভাইকে তারা কুপিয়ে হত্যা করেছে। আহতদের অবস্থা খুবই খারাপ।

সদর হাসপাতালে কর্তব্যরত চিকিৎসক শামিম মোহাম্মদ আফজাল বলেন, নিহত ব্যক্তির গলায় ধারালো অস্ত্রের আঘাত ছিল। আহতদের হাত-পা, মাথা ও পিঠসহ শরীরের বিভিন্ন অংশে ধারালো অস্ত্রের আঘাত রয়েছে। তাদেরকে এখানে রেখে চিকিৎসা দেওয়া সম্ভব নয়। তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

লক্ষ্মীপুর শহর পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক (তদন্ত) জহিরুল আলম বলেন, হামলার ঘটনায় একজন মারা গেছেন। আহতদের উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

আরও খবর: