রাজধানী

রুটিনের বাইরেও চলছে লোডশেডিং

  জাগোকন্ঠ ২৩ জুলাই ২০২২ , ৩:৫০ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক:

এক ঘণ্টা লোডশেডিং করার পরও প্রয়োজনীয় বিদ্যুৎ পাচ্ছে না রাজধানীতে বিদ্যুৎ বিতরণের দায়িত্বে থাকা ডিপিডিসি ও ডেসকো। ফলে রুটিনের বাইরে গিয়ে লোডশেডিং করতে হচ্ছে। এর পরিমাণ এলাকাভেদে ২-৩ ঘণ্টাও হচ্ছে। গত মঙ্গলবার থেকে দেশব্যাপী জ্বালানি পণ্যের সংকটের মধ্যে বিদ্যুতের ব্যবহার কমাতে এলাকাভিত্তিক এক ঘণ্টা করে লোডশেডিং শুরু করে সরকার।

ডেসকোর আওতাধীন মিরপুর-১১ নাম্বারের এভিনিউ-৫ এলাকার বিদ্যুতের গ্রাহক মেহেদী হাসান বলেন, ‘সরকার এক ঘণ্টা লোডশেডিং করার কথা বললেও ২-৩ ঘণ্টা বিদ্যুৎ থাকছে না। আমার এলাকায় বিদ্যুৎ যাওয়ার কথা সকাল ১০টা থেকে ১ ঘণ্টা। কিন্তু লোডশেডিং হয়েছে সকাল সাড়ে ১০টা থেকে। প্রথমে ১ ঘণ্টা বিদ্যুৎ না থাকলেও পরে আরও ২ বার বিদ্যুৎ চলে গেছে।

এ বিষয়ে ডেসকো কর্তৃপক্ষ জানান, আমার এলাকায় এক ঘণ্টা লোডশেডিং করার পরও ১৫০০ মেগাওয়াটের ওপর বিদ্যুৎ প্রয়োজন। কিন্তু আমাদের সরবরাহ করা হচ্ছে ১০০০ মেগাওয়াট। আমাদের আগের শিডিউল অনুযায়ী সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টার মধ্যে লোডশেডিংয়ের পরিকল্পনা করেছিলাম। কিন্তু এখন বিদ্যুৎ সরবরাহ কম থাকায় রাত ১০টার পরও লোডশেডিং করতে হবে। একই সঙ্গে লোডশেডিংয়ের পরিমাণও বাড়বে।

আরও খবর: