দেশজুড়ে

ফুলবাড়ীতে গবাদিপশুর খাদ্য খরচ হ্রাসকরণে উন্নত জাতের ঘাষ চাষে উদ্বুদ্ধকরণ ও সংরক্ষণ বিষয়ক প্রদর্শন

  জাগোকন্ঠ ৮ মে ২০২৪ , ১১:০০ পূর্বাহ্ণ

অমর চাঁদ গুপ্ত অপু, ফুলবাড়ী (দিনাজপুরপ্রতিনিধি:

দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তর ও ভেটেরিনারী হাসপাতালের উদ্যোগে গবাদিপশুর খাদ্য খরচ হ্রাসকরণে উন্নত জাতের ঘাষ চাষে কৃষকদের উদ্বুদ্ধকরণ ও সংরক্ষণ বিষয়ক সাইলেজ প্রযুক্তি প্রদর্শন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

গতকাল বুধবার (৮ মে) সকালে উপজেলার আলাদিপুর ইউনিয়নের ছোট ভিমলপুর গ্রামের গবাদিপশুর খামারী আব্দুলস্নাহ আল হাসিবের খামার চত্বরে আয়োজিত গবাদিপশুর খাদ্য খরচ হ্রাসকরণে উন্নত জাতের ঘাষ চাষে কৃষকদের উদ্বুদ্ধকরণ ও সংরক্ষণ বিষয়ক সাইলেজ প্রযুক্তি প্রদর্শন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ড. মো. রবিউল ইসলাম, বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা ভেটেরিনারী সার্জন ডা. মো. নেয়ামত আলী। এছাড়াও বক্তব্য রাখেন কমিউনিটি এঙ্টেনশন এজেন্ট মো. মামুনুর রশিদ।

উপস্থিত গবাদিপশুর খামারী ও লালন-পালনকারিদের উদ্দেশ্যে আলোচকরা জানান, গবাদিপশুর খামার পরিচালনায় সবচেয়ে বেশি খরচ হয় গো-খাদ্যে। এতে ৭০ শতাংশ খরচ হয়। বৈশ্বিকভাবে গো-খাদ্য মূল্যের ঊর্ধ্বগতি হওয়ায় এর প্রভাবে বাংলাদেশের খামারিরাও খামার পরিচালনায় হিমশিম খাচ্ছেন। এজন্য গো-খাদ্য খরচ হ্রাসকরণের লক্ষ্যে দানাদার গো-খাদ্যের বিকল্প হিসেবে স্বল্প খরচে উন্নত জাতের ঘাস চাষে উদ্বুদ্ধকরণ ও ঘাস সংরক্ষণে সাইলেজ প্রযুক্তি প্রদর্শন করা হচ্ছে, যাতে করে আগামীতে খামারী ও গবাদিপশু পালনকারিদের কল্যাণে কাজ করে।

উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ড. মো. রবিউল ইসলাম বলেন, গবাদিপশুর খাদ্য খরচ হ্রাসকরণে উন্নত জাতের ঘাষ চাষে কৃষকদের উদ্বুদ্ধকরণ ও সংরক্ষণ বিষয়ক সাইলেজ প্রযুক্তি প্রদর্শনসহ এর কার্যকারীতার বিষয়ে কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

আরও খবর: