আন্তর্জাতিক

দ্বন্দ্বে জড়িয়ে যেতে পারে রাশিয়া-তুরস্ক

  জাগোকন্ঠ ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ , ৪:০৮ অপরাহ্ণ

মঙ্গলবার মধ্যরাতে হঠাৎ করে ককেশিয়া অঞ্চলের দেশ আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হয়। এখন পর্যন্ত এ ঘটনায় দুই দেশের ১০০ জন সেনা নিহত হয়েছেন।

বুধবার স্থানীয় সময় সকালে আবারও দুই দেশ সংঘর্ষে জড়ায়।

এর ফলে তাদের মধ্যে যুদ্ধ বেঁধে যাওয়ার শঙ্কা দেখা দিয়েছে। আর যেটি এটি সত্যিই ঘটে তাহলে আজারবাইন-আর্মেনিয়া যুদ্ধের জন্য দ্বন্দ্বে জড়িয়ে যাবে রাশিয়া ও তুরস্ক।

রাশিয়া হলো আর্মেনিয়ার মিত্র। অন্যদিকে তুরস্ক হলো আজারবাইজানের মিত্র।

আর্মেনিয়ার রাশিয়ার সামরিক ঘাঁটি আছে। তাদের সঙ্গে রাশিয়ার চুক্তি আছে যদি কোনো দেশ তাদের ওপর হামলা করে তাহলে রাশিয়া হস্তক্ষেপ করবে।

২০২০ সালে যখন নাগারনো-কারাবাখ নিয়ে আর্মেনিয়া ও আজারবাইজান যুদ্ধে জড়িত হয়েছিল সেই যুদ্ধ থেমেছিল রাশিয়ার মধ্যস্থতায়। যুদ্ধ থামার পর রাশিয়া সেখানে তার ২ হাজার শান্তিরক্ষীকে পাঠায়।

আর্মেনিয়া-আজারবাইজানের মধ্যে আবারও যুদ্ধ বেঁধে গেলে সেখানে থাকা একটি গুরুত্বপূর্ণ পাইপ লাইনও বন্ধ হয়ে যাওয়ার শঙ্কা তৈরি হবে। এই পাইপ লাইন দিয়ে তেল ও গ্যাস সরবরাহ করা হয়। বর্তমানে ইউক্রেন যুদ্ধ নিয়ে এমনিতেই সরবরাহ ঝুঁকিতে আছে। ককেশিয়ায় দ্বন্দ্ব শুরু হলে সরবরাহ প্রক্রিয়ায় বড় ধরনের ব্যত্যয় ঘটতে পারে।

সূত্র: আল জাজিরা

আরও খবর: