1. mdmobinali112@gmail.com : admin2020 :
  2. mdalimobin112@gmail.com : Ali Mobin : Ali Mobin
মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল ২০২১, ০১:০৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
মাহে রমজান উপলক্ষে এক হাজার অসহায় পরিবারকে ইফতার সামগ্রী বিতরন করলেন; আ: লতিফ হাঐকার ফরিদপুরের ভাঙ্গায় দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ১ সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী কীভাবে নেবেন ‘মুভমেন্ট পাস’ জেনে নিন লকডাউনে কর্মহীন পরিবার পাবে নগদ ৫০০ টাকা ও খাবার বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল : চিকিৎসক চন্দ্রগঞ্জে অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে ঢেউনিট ও আর্থিক সহায়তার চেক বিতরন স্বাস্থ্য বিধি মেনে ই চলতে হবে; ডামুড্যা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মর্তুজা আল মুঈদ নড়িয়ায় ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশন উদ্বোধন করলেন; উপমন্ত্রী এ কে এম এনামুল হক শামীম ৬ পণ্যের দাম নির্ধারণ করে দিয়েছে সরকার

খুলনার দাকোপের বাজুয়ায় সাপ্তাহিক হাট লক ডাউন শিথিল হওয়ায় হাট-বাজার টি আবার প্রান ফিরে পেয়েছে |জাগোকণ্ঠ

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ৫ মে, ২০২০

স্বপন কুমার রায়, খুলনা ব্যুরো প্রধানঃ

খুলনার দাকোপের লাউডোব (বাজুয়া) সাপ্তাহিক হাট বাজার মঙ্গলবার পুর্বে স্হানন্তর করা হলেও আজ হাটটি নিজস্ব জায়গায় বসেছে।করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে হাটটিকে জনসংগম রোধ এড়াতে স্হান পরিবত্তন করে উপজেলা প্রশাসন বাজুয়া ইউনিয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মাঠে স্হান্তান্তর করে। করোনা ভাইরাস এড়াতে জনসংগ্রাম প্রতিরোধে হাটবাজারে বিভিন্ন সময়ে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেছেন উপজেলা প্রশাসন।লকডাউন কিছুটা শিথিল হলে আজ ৫ এপ্রিল মঙ্গলবার সকাল থেকে মনে হচ্ছে হাটবাজার তার প্রান ফিরে পেয়েছে, উপছে পড়া ভীড়, নেই কোন সামাজিক দুরত্তর বালাই মিলেমিশে একাকার হয়েগেছে বিভিন্ন এলাকা থেকে আসা মানুষের সাথে। উপজেলা প্রশাসন কৃষকদের কথা চিন্তা করে বহিরগত ব্যপারী, ট্রাক চালক ও ট্রলারের অনুমোদন দেন।যাতে করে ব্যপারীরা তরমুজ নিয়ে অনায়াসে তাদের মোকামে নিয়ে বেচাকেনা করতে পারেন।
এসয় উপজেলা কৃষিকর্মকর্তা জনাব মেহেদী গাসান বলেন খুলনার দাকোপের ৯ টি ইউনিয়নের মধ্যে বাজুয়া, দাকোপ, কৈলাশগঞ্জ, লাউডোপ ও বানীশান্তা ইউনিয়নে ব্যাপক হারে তরমুজসহ বিভিন্ন ধরনের সব্জির চাষা কারকিত হয়েছে।
এ ছাড়া কামারখোলা, তিলডাঙ্গা, পানখালী এবং চালনা পৌরসভার উল্লেখযোগ্য সংখ্যাক জমি এবার এই চাষাআবাদের আওতায় এসেছে। সব মিলে দাকোপে এবার ১৫৩৫ হেক্টর জমিতে তরমুজ, ১৫ হেক্টর বাঙ্গি, ৪০৮ হেক্টর সব্জি, ৪০ হেক্টর সূর্যমূখী, ভূট্টা, মুগডাল, তিল এবং ৮৫ হেক্টর জমিতে বোরো ধান উৎপাদন হয়েছে। যা টাকার অংকে কেবল তরমুজ বিক্রি থেকে ৫ শত কোটি টাকা আয়ের আশা করা হচ্ছে। বিঘা প্রতি তরমুজের উৎপাদন খরচ পড়েছে ১৬/১৮ হাজার টাকা, বিপরীতে ৪৫/৫০ হাজার টাকা বিক্রি হবে এমনটাই প্রত্যাশা করছেন চাষিরা। দেশে উৎপাদিত তরমুজের মধ্যে সুস্বাধু এবং ভাল ফলনের কারণে দাকোপের তরমুজের চাহিদা অপেক্ষাকৃত অনেক বেশী।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবদুল ওয়াদুদ জানিয়েছেন, একদিকে কৃষককে বাঁচাতে হবে অপরদিকে সাধারণ মানুষের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। এমন পরিস্থিতিতে আমরা ড্রাইভিং লাইসেন্স, গাড়ীর বৈধ কাগজপত্র, আইডি কার্ড এবং স্বাস্থ্য সনদ প্রদর্শনের শর্তে খুলনা সাতক্ষিরা বাগেরহাট যশোর এলাকার পরিবহন গাড়ী ও ড্রাইভারদের এখানে আসার অনুমতি দিয়েছি। অনুরুপ শর্তে একই অঞ্চলের ক্রেতা বা ব্যাপারীদের দাকোপে এসে তরমুজ কেনার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। তবে অন্যান্য বহিরাগতদের মধ্যে কেউ যদি তরমুজ চাষাবাদের সাথে সরাসরি সংশ্লিষ্ট থাকে তাদেরকে স্বাস্থ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করে কৃষকরা আশাবাদী নায্যমূল্য পেলে উৎপাদন খরচের দ্বিগুন ব্যবসা হবে। অনেকে আবার বিভিন্ন সমিতি অথবা মহাজনি সুদে টাকা নিয়ে চাষাবাদ করেছেন।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মেহেদী হাসান খান বলেন, দেশে অন্যান্য নিত্যুপণ্য বিপনন ও পরিবহন যদি চলমান থাকতে পারে তবে কেন কৃষি পণ্য পারবেনা ? তিনি অর্থনৈতিক বৃহত্তর স্বার্থে যথাযথ স্বাস্থ্য বিধি মেনে ব্যাপারীদের দাকোপে আসার সুযোগ দেওয়া উচিত মন্তব্য করে বলেন অন্যথায় চাষিরা পথে বসে যাবে। তবে এলাকাবাসীর ভাষ্য সবার আগে ভাবতে হবে সার্বজনীন মানুষের নিরাপত্তা।
এদিকে খুলনা পুলিশ সুপার এসএম শফিউল্লাহ এর নির্দেশক্রমে দাকোপ থানা পুলিশের , অফিসার ইনচার্জ সফিকুল ইসলাম ইসলাম চৌধুরীর নেতৃত্বে পানখালী ও পোদ্দারগঞ্জ ফেরিঘাটে দুর দুরান্ত থেকে আসা তরমুুজ বহনকারী ট্রাক ড্রাইভারদের ও তরমুজ ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত রোধকল্পে, নির্বঘ্নে চলাচল নিশ্চিতকল্পে দাকোপ থানা পুলিশের কার্যক্রম অবাহত রয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..