জাতীয়

‘ইউরিয়া’ সারের ব্যবহার কমাতে চায় কৃষি মন্ত্রণালয়

  জাগোকন্ঠ ২৬ জুলাই ২০২২ , ১১:৩০ পূর্বাহ্ণ

কৃষিমন্ত্রী মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, এখন প্রতি কেজি ইউরিয়া এবং ডিএপি সারের দাম ১৬ টাকা করে। আমাদের ধারণা ছিল, কৃষকরা খুব বেশি ইউরিয়া ব্যবহার করেন। ইউরিয়া দিলে গাছের পাতাগুলো সবুজ হয়, মনে হয় অনেক বেশি ফলন হবে। অনেক সময় এটার কাউন্টার প্রোডাকশন হয়, ফসল চিটা হয়ে যায়। দানাগুলো পুষ্ট হয় না। কার্বোহাইড্রেড সোর্সগুলো চলে যায় পাতার মধ্যে। তাই আমরা চাই ইউরিয়ার সারের ব্যবহারটা কমুক।

মঙ্গলবার দুপুরে কৃষি মন্ত্রণালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, ইউরিয়া সার নিয়ে আমরা গভীরভাবে চিন্তা করছি। আসলে ইউরিয়ার ব্যবহারটা কমাতে হবে। এসব দিক দিয়ে আলাপ-আলোচনা চলছে।

তিনি বলেন, আমরা এত দাম দিয়ে সার কিনছি, এটা কি সঠিক? যারা উন্নত বিশ্ব যুদ্ধে জড়িয়েছে, তারা কেন নিষেধাজ্ঞা দেবে? কেন সারের ওপর, তেলের ওপর নিষেধাজ্ঞা আসবে?’

ইউরোপীয় দেশগুলো প্রতিদিন রাশিয়া থেকে গ্যাস নিচ্ছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, গ্যাস নিয়ে তাদের শিল্প-কারখানা পরিচালনা করছে। জ্বালানির প্রয়োজন মেটাচ্ছে। আর আমাদের সার, যেটা প্রাথমিক একটা গুরুত্বপূর্ণ উপকরণ, সেটা আমরা পাচ্ছি না।

তিনি আরও বলেন, তাদের যুদ্ধ করার দরকার তারা যুদ্ধ করুক এটা তাদের ব্যাপার। কিন্তু নিষেধাজ্ঞা কেন দেবে? অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডের ওপর নিষেধাজ্ঞা থাকা উচিত নয়। এতে স্বল্পোন্নত দেশগুলো খুবই ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।

আরও খবর: